অর্ডার বেড়েছে জাস্ট ইট টেকওয়েতে

0
8
অর্ডার বেড়েছে জাস্ট ইট টেকওয়েতে

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে (জানুয়ারি-মার্চ) খাবার ডেলিভারি সংস্থা জাস্ট ইন টেকওয়ের অর্ডার এর পরিমাণ অবিশ্বাস্য হারে বেড়েছে। যার পরিমাণ প্রায় ৭৯ শতাংশ । অবিশ্বাস্য বলার কারণ এই বৃদ্ধির পরিমাণ সংস্থাটির নিজের করা বৃদ্ধির পূর্বাভাসের তুলনায় দ্বিগুণ। ব্রিটেন এবং অন্যান্য বাজারে কোভিড-১৯ মহামারী চলাকালীন মানুষ লকডাউন,কারফিউ ও অন্যান্য কারণে মানুষ বেশি সময় বাড়িতে পাড় করায় অনলাইনে খাবার সরবরাহকারী সংস্থাটির অর্ডার বেড়ে যায়।

নেদারল্যান্ডসের আমস্টারডাম ভিত্তিক সংস্থাটি কিন্তু গত বছর লোকসান গুনেছিল । মহামারীজনিত বিধিনিষেধ শিথিল করলেও ২০২১ সালের বাকি যে সময় রয়েছে তাতেও অর্ডার এর পরিমাণ বাড়বে বলে প্রত্যাশা করছে প্রতিষ্ঠানটি।কারণ মহামারী চলে গেলেও অনলাইনে খাবার অর্ডার অনেকটা নিউ নরমাল হয়ে গিয়েছে।ফলে মহামারী শেষ হলেও মানুষের অনলাইন অর্ডার তেমন কমবে না। গত মাসে সংস্থাটি তাদের ২০২১ সালের আয়ের প্রতিবেদনে প্রথম প্রান্তিকে ৪২ শতাংশ অর্ডার বৃদ্ধির ইঙ্গিত দিয়েছিল।কিন্তু তাদের ইঙ্গিতের চেয়েও অনেক বেশী অর্ডার পড়েছে এই প্রান্তিকে। যার মোট পরিমাণ প্রায় ৭৯ শতাংশ। এ প্রসঙ্গে টেকওয়ের সিইও জিতসে গ্রোইন সাংবাদিকদের উদ্দ্যেশে বলেন, ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে ৭৮০ কোটি ডলারে জাস্ট ইট অধিগ্রহণ করে টেকওয়ে। এর কারণ হিসেবে ব্রিটেনের বাজারকে ধরা হয়। কারণ তখন অনলাইন ফুড অর্ডার এর ক্ষেত্রে ব্রিটেন সম্পূর্ণ একটি ব্যতিক্রমী বাজার ছিল। যার বাস্তবতা পাওয়া যায়,সাম্প্রতিক সময়ে প্রতিষ্ঠানটির অর্ডার এর পরিমাণ দেখলেই। এ বছরের প্রথম প্রান্তিকে অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে মার্চের এ সময়কালে ব্রিটেনে জাস্ট ইট টেকওয়ে ডটকম ৬ কোটি ৩৮ লাখ অর্ডার পেয়েছে।

অথচ ২০২০ সালের প্রথম প্রান্তিকে ভিন্ন দুটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে থাকা টেকওয়ে ও জাস্ট ইটের সম্মিলিত অর্ডারের পরিমাণও এতো ছিল না। অবিশ্বাস্য হলেও সত্য গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে এ দুটি প্রতিষ্ঠানের মোট অর্ডার এর তুলনায় এ সংখ্যা প্রায় ৯৬ শতাংশ বেশি।

তবে অর্ডার এর পরিমাণ বাড়লেও টেকওয়ের লাভ কিন্তু খুব বাড়ছে না।কারণ টেকওয়ে একই ধরনের ছোট সংস্থা উবার ইটস ও ডেলিভারুর সঙ্গে ব্রিটেনে প্রতিযোগিতা করছে। ফলে তারা লাভের চেয়ে বাজার বৃদ্ধির দিকে নজর দিচ্ছে বেশী। প্রতিষ্ঠানটির প্রান্তিক আয়ের প্রতিবেদনেও তারা জানায় যে, বাজারের অংশীদারিত্ব বৃদ্ধির জন্য মুনাফা ত্যাগ করতে চায় বলে তাদের প্রতিষ্ঠান। গত বছর একই কারণে টেকওয়ে ১৫ কোটি ১০ লাখ ইউরো লোকসান গুনেছিল। অবশ্য খালি চোখে লোকসান অনেক মনে হলেও,বাজারের শেয়ার ধরতে পারলে এই লোকসান এক বছরেই লাভে পরিণত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here