বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিঃ এলন মাস্ক নাকি জেফ বেজোস?

0
40
সবচেয়ে ধনী মাস্ক বেজোস

৪৯ বছর বয়সী এলন মাস্ক বর্তমানে জীবিত সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি, এ কথা সবাই জানে। এই খবর প্রত্যেকে অন্তত একবার হলেও শুনেছে। এর পেছনের আসল ঘটনাগুলো এখন জানা যাক। তবে এর আগে “ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইনডেক্স” এর ব্যাপারে জানা যাক। তালিকা অনুযায়ী এলন মাস্ক ১৯৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের (প্রায় ১৬ লক্ষ ৫৭ হাজার কোটি টাকা) সম্পদ নিয়ে শীর্ষে আছেন। ২য় অবস্থানে আছেন জেফ বেজোস, মাত্র ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ৮৫ হাজার কোটি টাকা) কমে অর্থাৎ তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১৮৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ১৫ লক্ষ ৭২ হাজার কোটি টাকা)।

এলন মাস্কের শীর্ষস্থানে আসার প্রধান কারণ হচ্ছে তাঁর কোম্পানি টেসলা, স্পেসএক্স এবং সোলার সিটি – এই তিনটিই বর্তমানে তাদের ব্যবসায় কল্পনাতীতভাবে লাভ করছে। সেখানে জেফ বেজোসের কোম্পানি বলতে শুধুমাত্র তাঁর ই-কমার্স অ্যামাজনকেই বুঝায়। বর্তমানে তাঁর কোম্পানি বেশ লাভ করতে থাকলেও তা এলন মাস্কের কোম্পানিগুলোর লাভের তুলনায় অনেক কম।

এছাড়া বিল গেটস ১৩৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ১১ লক্ষ ৩৯ হাজার কোটি টাকা) নিয়ে ৩য় অবস্থানে আছেন। চীনের ঝং শানশান এখন ৬ষ্ঠ অবস্থানে। তিনি ৯৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ৭ লক্ষ ৯০ হাজার কোটি টাকা) নিয়ে এখন এশিয়ার শীর্ষে আছেন। মুকেশ আম্বানি, এশিয়ান সাবেক এক নম্বর পুঁজিপতি এখন মাত্র ৭৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার (প্রায় ৬ লক্ষ ২০ হাজার কোটি টাকা) নিয়ে ১৩তম স্থানে আছেন।

মোট সম্পদ মূল্য কী, তার পুরো ধারণাটি কিছুটা উদ্ভট এবং একটি অনুমান। এই সম্পদ কোনো ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা করা হয় না। ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে এতো বিপুল পরিমাণ সম্পদ রাখার ধারণাটিও হাস্যকর মনে হয়। যদিও মোট সম্পদ মূল্যের অর্থ হলো এমন ধনসম্পদের পরিমাণ যার মধ্যে কোনো বকেয়া ঋণ থাকবে না, এর গণনা এতো সহজ নয়। মোট সম্পদ মূল্য গণনা করার জন্য এই সমস্ত কারণগুলো বিবেচনা করা উচিত, যেগুলোর মধ্যে আর্থিক বা অনার্থিক সম্পদ, সম্পত্তি, কোম্পানির শেয়ার ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত আছে।

বিতর্কটি শুরু হয়েছিল কারণ আরও একটি সংস্থা আছে, যা বিশ্বের ধনী ব্যক্তিদের তালিকা প্রকাশ করে। আসলে কিছুটা হলেও বিশ্বাস করা যায় যে এটি ব্লুমবার্গের চেয়ে কিছুটা বেশি নির্ভরযোগ্য। এর নাম ফোর্বস। “ফোর্বস রিয়েল টাইম বিলিয়নিয়ার্স” এর তালিকা এখনও একমত হয় নি যে এলন মাস্ক এখন সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি। এটি ছিল যখন মোট সম্পদ মূল্য গণনা করা হয় তখন যে জটিলতা দেখা দেয় তার জন্য। সময় ও স্থান এবং প্রক্রিয়া গণনার জন্য কে দায়ী তা বিবেচনা করে গণনা আলাদা হতে পারে। তবে এই বিতর্কটি নিজে থেকেই সমাধান হয়ে যাবে এবং ফোর্বসও শীঘ্রই স্বীকৃতি দিতে পারে যে এলন এখন এক নম্বরে আছেন। এর কারণ হচ্ছে টেসলা শেয়ারের দামগুলো যেভাবে আকাশচুম্বি হচ্ছে, এটি অনিবার্য যে খুব শীঘ্রই এই বিশাল প্রযুক্তিবিদ এলন তালিকা দখল করবেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here